Home মাধ্যমিক নিয়োগ পেয়েও এমপিও বঞ্চিত ; দ্বৈত নীতি করা হচ্ছে অভিযোগ শিক্ষকদের

নিয়োগ পেয়েও এমপিও বঞ্চিত ; দ্বৈত নীতি করা হচ্ছে অভিযোগ শিক্ষকদের

101
0
নতুন পরীক্ষাপদ্ধতি বাস্তবায়ন কঠিন

দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সনদ নিয়ে কেউ এমপিওভুক্ত হচ্ছেন । আবার কাউকে এমপিওভুক্ত করা হচ্ছে না। এভাবে তাদের প্রতি অবিচার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সংশ্লিষ্ট শিক্ষকরা। এর প্রতিকার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছেন তারা।

আবেদনে বলা হয় আমরা “দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়” সনদে নিয়োগ প্রাপ্ত কতিপয় সহকারী শিক্ষক ও গ্রন্থাগারিক । দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্জিত সনদধারীদের  ২০১৬ সালের ১৩ই এপ্রিল হাইকোর্টের রায়ের পূর্ব পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্কুল-মাদ্রাসা ,কলেজ এ বিধি মোতাবেক নিয়োগ দেয়া হয়। সে মোতাবেক  আমরা  সকলে নিয়োগ পেয়ে নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে  নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছি। উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেকে বেতন পেলও কিন্তু একই রকম নিয়োগ, যোগ্যতা  ও বয়স থাকার পরও আমাদের এমপিও হচ্ছে না যা চরম দ্বৈত নীতির উদাহরণ  ।

আবেদনে আরো বলা হয়, গত ২০১৮ সালের ২৮ আগস্ট  মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের এক বৈঠকের সুপারিশ অনুযায়ী শিক্ষা মন্ত্রনালয় হাইকোর্টের রায়ের পূর্বে  নিয়োগ প্রাপ্তদের এমপিও দেওয়ার নির্দেশ জারি করলেও পরের দিনই  অর্থাৎ ২৯শে আগস্ট অনিবার্য কারণ দেখিয়ে ওই আদেশ স্থগিত ঘোষণা করে ।  পরে শিক্ষা মন্ত্রনালয় এই আদেশ যথাযথ হয়েছে কিনা তা মতামতের জন্য আইন মন্ত্রনালয়ে  পাঠানো হয়।

আইন মন্ত্রনালয়  দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের সনদ গ্রহণের  পক্ষে মতামত প্রদান করলেও   শিক্ষা মন্ত্রনালয়  এ ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে নি ।এ সময়ে শিক্ষা মন্ত্রনালয় অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমেদ মহোদয় বলেছিলেন সব কিছু ঠিকই  আছে ।  ২০১৮ সালের  ডিসেম্বরে  জাতীয় নির্বাচনের পর ওই আদেশ ছাড়া হবে । এছাড়া গত ২০১৯ সালের মে মাসে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এক চিঠিতে ২০১৬ সালের ১১ এপ্রিল তারিখ  পর্যন্ত দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইস্যুকৃত সকল সনদের বৈধতা দিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি  জারির  কথা বলা হলেও তা এখনো কার্যকর করা হয় নি । যদিও  হাইকোর্টের রায়ে দারুল ইহসানের সনদ অবৈধ ঘোষিত হয়নি  ।

আবেদনে উল্লেখ করা হয়, রায়ে বলা হয়েছে , বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের মূল কর্তৃপক্ষ ম্যানেজিং কমিটি। । হাইকোর্টের রায়ে সনদ গ্রহণের বিষয়টি ম্যানেজিং কমিটিকে সিদ্ধান্ত গ্রহনের এখতিয়ার দেওয়া হয়েছে। সে সুবাদে আমরা কমিটির মাধ্যমে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছি ।
উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সনদে  এমপিও বঞ্চিত  আমরা মনে করি ,  শিক্ষা মন্ত্রণালয় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর যদি উপজেলা ও জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস এর মাধ্যমে মহামান্য হাইকোর্টের রায় এর পূর্বে  ” দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় ” এর সনদে  বিধি মোতাবেক  নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের তালিকা সংগ্রহপূর্বক এমপিওভুক্তির আদেশ প্রদান করে তাহলে প্রকাশিত তালিকার বাইরে কেউ আর পরবর্তী সময়ে নিয়োগ নিতে বা এমপিও ভুক্ত হতে পারবে না।   

শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here