A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: fopen(/var/cpanel/php/sessions/ea-php74/ci_session501b7bcb48533b6575b60a50f6030e1bf1346a7e): failed to open stream: Disk quota exceeded

Filename: drivers/Session_files_driver.php

Line Number: 172

Backtrace:

File: /home/educationban/public_html/application/controllers/Front_side_news.php
Line: 6
Function: __construct

File: /home/educationban/public_html/index.php
Line: 315
Function: require_once

A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: session_start(): Failed to read session data: user (path: /var/cpanel/php/sessions/ea-php74)

Filename: Session/Session.php

Line Number: 143

Backtrace:

File: /home/educationban/public_html/application/controllers/Front_side_news.php
Line: 6
Function: __construct

File: /home/educationban/public_html/index.php
Line: 315
Function: require_once

শিক্ষায় বরাদ্দ কত শতাংশ হওয়া উচিত, কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা
  • কলেজ
  • শিক্ষায় বরাদ্দ কত শতাংশ হওয়া উচিত, কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা

শিক্ষায় বরাদ্দ কত শতাংশ হওয়া উচিত, কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা

 

করোনাকালের ব্যাপক ক্ষতি কাটিয়ে ওঠা এবং প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্রের মান উন্নয়ন, নতুন নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু, বিভিন্ন স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসা জাতীয়করণ, শিক্ষকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো, মানসম্মত শিক্ষক ও শিক্ষা নিশ্চিতের জন্য শিক্ষা খাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে বিভিন্ন দফতর থেকে।

কেউ কেউ আবার জাতীয় বাজেটের ২০ শতাংশ শিক্ষায় বরাদ্দের দাবি জানিয়েছেন। তবে শিক্ষা বিশেষজ্ঞদের মতে, শিক্ষার মান বাড়াতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়নের চেয়ে গবেষণা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম জোরদার করতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দিতে হবে।

আসন্ন বাজেটে শিক্ষা খাতে বরাদ্দ বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের (স্বাশিপ) সাধারণ সম্পাদক ও বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টে সচিব অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার গত ১৩ বছর শিক্ষা ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। ২৬ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৩৩০টি কলেজ, ২২০টি হাইস্কুল জাতীয়করণ, ৪ হাজার ৫০০টি বেসরকারি স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তকরণ, বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের ৫% ইনক্রিমেন্ট, ২০% বৈশাখি ভাতা, বাড়ি ভাড়া ও মেডিকেল ভাতা বৃদ্ধি, কল্যাণ ও অবসর বোর্ডের জন্য ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা বিশেষ বরাদ্দ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। কিন্তু তারপরও শিক্ষাক্ষেত্রে অনেক অনেক সমস্যা বিরাজমান রয়েছে।

পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা, সরকারি অনুরূপ বাড়ি ভাড়া ও মেডিকেল ভাতা প্রদানের জন্য আসন্ন বাজেটে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান এই শিক্ষক নেতা।

এদিকে গবেষণা খাতে সর্বোচ্চ বাজেট বরাদ্দের ওপর গুরুত্বারোপ করে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. মোহা. হাছানাত আলী বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বাড়ছে, কিন্তু শিক্ষার মান দিন দিন কমে যাচ্ছে। এর অন্যতম কারণ হচ্ছে শিক্ষাক্ষেত্রে বিশেষ করে গবেষণা ক্ষেত্রে, সিম্পোজিয়াম সেমিনারের ক্ষেত্রে বাজেট বরাদ্দ একেবারেই অপ্রতুল। যেখানে উন্নত দেশগুলোয় গবেষণা খাতে বাজেট বরাদ্দ দিন দিন বৃদ্ধি করা হচ্ছে, তখন বাংলাদেশে অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য বাজেট বৃদ্ধি করা হচ্ছে, কিন্তু গবেষণা খাতে বাজেটের পরিমাণ কমে যাচ্ছে। অতএব, শিক্ষাক্ষেত্রে ট্রেনিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ক্ষেত্রে, গবেষণা, সিম্পোজিয়াম, সেমিনার ইত্যাদি ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দিয়ে বাজেট প্রণয়ন করতে হবে। না হলে এদেশের শিক্ষাকে অধঃপতনের হাত থেকে রক্ষা করা যাবে না।