Home কলেজ বন্ধ শাহ মখদুম মেডিকেলের ২০৭ শিক্ষার্থী চরম বিপাকে

বন্ধ শাহ মখদুম মেডিকেলের ২০৭ শিক্ষার্থী চরম বিপাকে

34
0

বেসরকারি কলেজ স্থাপন ও পরিচালন নীতিমালা প্রতিপালনে ব্যর্থ হওয়ায় গত নভেম্বরে বন্ধ হয়েছে রাজশাহীর শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজ। এতে কলেজের বিভিন্ন বর্ষের ২০৭ জন শিক্ষার্থী পড়েছেন চরম বিপাকে। মাইগ্রেশনে ভর্তি হতে অন্য কলেজ দাবি করছে অর্থ, আর সুযোগ বুঝে বন্ধ হওয়া কলেজের মালিক সনদ আটকে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে দাবি করছেন অর্থ।

রোববার (২৭ ডিসেম্বর) সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নিজেদের সমস্যার কথা বলতে এসেছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা। তারা বলছেন, স্বাস্থ্য অধিদফতর, শাহ মখদুম মেডিকেল ও অন্যান্য মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীদের নিয়ে ফুটবলের মতো খেলছে। সেশনজটের আশঙ্কাসহ মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন এসব শিক্ষার্থী।

তার আরও বলছেন, রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অন্য সব বেসরকারি মেডিকেল কলেজের মাইগ্রেশনের নির্দেশনা থাকলেও তা মানছে না মেডিকেল কলেজগুলো। শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ দাবি করছে এসব মেডিকেল কলেজ। সুযোগ বুঝে শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজের মালিকও সনদ আটকে মোটা অংকের টাকা চাইছেন।

শিক্ষার্থীদের সরকারি নীতিমালা অনুয়ায়ী অতিদ্রুত মাইগ্রেশন পূর্ণাঙ্গরূপে বাস্তবায়ন করে ভর্তির ও পরীক্ষা প্রদানের সুযােগ করা, শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজে ২০৭ জন শিক্ষার্থীর জমাকৃত মূল সনদপত্র ও অ্যাকাডেমিক কাগজ বিনাশর্তে স্ব স্ব শিক্ষার্থী অথবা মাইগ্রেশনকৃত কলেজে প্রেরণ করার নির্দেশ প্রদান করা, শিক্ষার্থীদের সাথে প্রতারণা, অর্থ আত্মসাৎ ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার দৃষ্টান্তমূলক বিচার করা হােক।

তারা বলছেন, শিক্ষার্থীরা এসব নিয়ে বারবার ডিন অফিস, ডিজি অফিস, অধিদফতরে যােগাযােগ করলেও এর সদুত্তর মেলেনি। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দাবির বাস্তবায়ন না হলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘেরাওসহ আমরণ অনশন কর্মসূচি দেয়া হবে।

প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী জয় বলেন, আমরা সব সংকটের সমাধান চাই, অতিদ্রুত পরীক্ষায় বসতে চাই।
আরেক শিক্ষার্থী বলেন, করোনার কারণে চলতি বছর আমরা পিছিয়ে গেছি। এখন আমাদের এই সমস্যার সমাধান না হলে আমরা সেশনজটে পড়বো। ব্যাহত হবে আমাদের শিক্ষাজীবন।

Print Friendly, PDF & Email
শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here