Home চাকরির খবর আজ থাকছে না গণপরিবহন, তবু হবে ভর্তি-নিয়োগ পরীক্ষা

আজ থাকছে না গণপরিবহন, তবু হবে ভর্তি-নিয়োগ পরীক্ষা

21
0

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে আজ শুক্রবার (৫ নভেম্বর) সকাল থেকে বন্ধ থাকবে সব ধরনের গণপরিবহন ও পণ্য পরিবহন চলাচল। তবে যথারীতি অনুষ্ঠিত হবে ৭ কলেজের ভর্তি ও রাষ্ট্রায়ত্ত ৭ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা।

বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) সারাদিন বিচ্ছিন্নভাবে অনেক যায়গায় পণ্য পরিবহন বন্ধ থাকলেও শুক্রবার সকাল থেকে একযোগে সারাদেশে এই ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে পণ্য পরিবহন ও গণপরিবহন মালিক সমিতি। ফলে শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য সব ধরনের গণপরিবহন ও পণ্য পরিবহন চলাচল বন্ধ থাকবে।

এমন পরিস্থিতিতে অনিশ্চয়তা দেখা শুক্রবার অনুষ্ঠিতব্য ৭ কলেজের ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে। তবে পরিবহণ ধর্মঘটের প্রভাব পড়ছে না সাত কলেজের ভর্তি পরীক্ষায়। পরীক্ষা স্থগিতের কোনো ঘোষণা না আসায় পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী আগামীকাল সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এ পরীক্ষা হবে।

সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আব্দুল মঈন গণমাধ্যমকে জানান, এখন পর্যন্ত পরীক্ষা স্থগিতের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত আমার জানা নেই। যথারীতি আগামীকাল সাতটি কেন্দ্রে সাত কলেজের বাণিজ্য অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এ পরীক্ষা হবে।

এছাড়াও একই দিন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা। ঢাকার ৬৫টি কেন্দ্রে প্রায় ২০ হাজার পরীক্ষার্থীর রাষ্ট্রায়ত্ত ৭টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র অফিসার নিয়োগের পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা। এক্ষেত্রেও পরীক্ষা স্থগিত কিংবা বাতিলের কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না আসায় আগামীকাল বিকেল ৩টায় এক ঘণ্টার এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম রাতে গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা আগেই সময় দিয়েছিলাম। আমাদের পরীক্ষা সময় মতোই হবে।

এদিকে পরিবহন মালিক সমিতির একটি সূত্র জানিয়েছে, এরই মধ্যে ঢাকার বাইরে অনেক জায়গায় পণ্য পরিবহনের গাড়ি চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। তবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার মধ্য দিয়ে সারাদেশে পরিবহন ধর্মঘট কার্যকর হতে যাচ্ছে।

এর আগে ডিজেল ও কেরোসিনের মূল্য পূণঃনির্ধারণ করে বুধবার রাতে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার। প্রজ্ঞাপনে নতুন মূল্যহার অনুযায়ী, ডিজেল ও কেরোসিনের মূল্য প্রতি লিটার ভোক্তা পর্যায়ে ৬৫ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০ টাকা পূণঃনির্ধারণ করা হয়।

এতে বলা হয়, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য ক্রমবর্ধমান। বিশ্ববাজারে ঊর্ধ্বগতির কারণে পার্শ্ববর্তী দেশসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ জ্বালানি তেলের মূল্য নিয়মিত সমন্বয় করছে। গত ১ নভেম্বর ২০২১ তারিখে ভারতে ডিজেলের বাজার মূল্য প্রতি লিটার ১২৪.৪১ টাকা বা ১০১.৫৬ রূপি ছিল অথচ বাংলাদেশে ডিজেলের মূল্য প্রতি লিটার ৬৫ টাকা অর্থাৎ লিটার প্রতি ৫৯.৪১ টাকা কম।

বর্তমান ক্রয় মূল্য বিবেচনা করে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন ডিজেলে লিটার প্রতি ১৩.০১ এবং ফার্নেস অয়েলে লিটার প্রতি ৬.২১ টাকা কমে বিক্রয় করায় প্রতিদিন প্রায় ২০ কোটি টাকা লোকসান দিচ্ছে। অক্টোবর ২০২১ মাসে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন বিভিন্ন গ্রেডের পেট্রোলিয়াম পণ্য বর্তমান মূল্যে সরবরাহ করায় মোট ৭২৬.৭১ কোটি টাকা লোকসান হয়েছে।

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে সরকার শুধু ডিজেল ও কেরোসিনের মূল্য প্রতি লিটার ভোক্তা পর্যায়ে ৬৫ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০ টাকা পূণঃনির্ধারণ করেছে। জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের ২২ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে জারি করা প্রজ্ঞাপন এবং এই সংক্রান্ত বিভিন্ন সময় জারি করা সংশোধনীসহ অন্য সব বিষয় অপরিবর্তিত থাকবে।

সর্বশেষ গত ২০১৬ সালের ২৪ এপ্রিল গেজেট প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে পেট্রোলিয়াম পণ্যের মূল্য কমিয়ে পুনঃনির্ধারণ করা হয়েছিল।

Print Friendly, PDF & Email
শেয়ার করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here