• মাধ্যমিক
  • স্কুল ফেলে নির্বাচনী প্রাচারে ভোট চাওয়ায় প্রধান শিক্ষককে শোকজ

স্কুল ফেলে নির্বাচনী প্রাচারে ভোট চাওয়ায় প্রধান শিক্ষককে শোকজ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নেত্রকোনা-২ (সদর-বারহাট্টা) আসনে ইসলামী ঐক্য জোটের প্রার্থী মো. ইলিয়াসের নির্বাচনী আলোচনা সভায় প্রার্থীর পক্ষে ভোটের প্রচারণা করেছেন এস এম সাজ্জাদুল হক সবুজ নামে এক প্রধান শিক্ষক। বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তার নজরে আসায় ওই শিক্ষকে কারণ দর্শানোর (শোকজ) নির্দেশ দিয়েছেন।

জানা গেছে, বুধবার (৬ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় ইসলামী ঐক্য জোটের প্রার্থী মো. ইলিয়াসের নিজ বাড়ি বারহাট্টা উপজেলার নুরুল্লার চর গ্রামে এক নির্বাচনী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে এলাকার লোকজন উপস্থিত ছিলেন। সেখানে ইলিয়াসের পক্ষে কাজ করার জন্য সবাইকে আহ্বান জানান আশিয়ল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাজ্জাদুল হক সবুজ।

স্কুলের সময় তিনি ওই নির্বাচনী সভায় উপস্থিত থেকে এলাকাবাসী উদ্দেশ্যে বলতে শোনা যায়, ‘ইলিয়াস (ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী) খুব ভালো ছেলে। তাকে ধরে রাখতে হবে। ইলিয়াসের জন্য সবাই কাজ করবেন।’

বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহেদ পারভেজের নজরে আসে। পরে তিনি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে এ বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন।

এ ঘটনায় বুধবার বিকেলেই জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান খান ওই শিক্ষককে শোকজ করলেও বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় জানা যায় শোকজের বিষয়টি। এ ব্যাপারে আশিয়ল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস এম সাজ্জাদুল হক সবুজ বলেন, ‘ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত একজনের সঙ্গে দেখা করার জন্য গিয়েছি। কিন্তু কোনো ভোট চাইনি। আমি কারণ দর্শানোর নোটিশও তিনি হাতে পাইনি।

এদিকে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান বলেন, ‘কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সংসদ নির্বাচনে কোনো প্রার্থীর পক্ষে কোনো সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারীর প্রচারণা চালানো সরকারি চাকরি বিধি ও নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন বলে জানান জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. গোলাম মোস্তফা।

সূত্র : সময় নিউজ