• উচ্চ শিক্ষা
  • ঢাবির জাপানিজ স্টাডিজে পরীক্ষার্থীর চেয়ে পাসের সংখ্যা বেশি

ঢাবির জাপানিজ স্টাডিজে পরীক্ষার্থীর চেয়ে পাসের সংখ্যা বেশি

পরীক্ষা না দিয়েই উত্তীর্ণের তালিকায় নাম আসে এক শিক্ষার্থীর। এমন ঘটনা ঘটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগের অধীনে স্নাতকোত্তর কোর্স প্রফেশনাল মাস্টার্স ইন জাপানিজ স্টাডিজের (পিএমজেএস)। পরীক্ষায় ৪০টি আসনের বিপরীতে ২৬ জন পরীক্ষা দিলেও পাস করেছেন ২৭ জন। 

নাম আসা ওই শিক্ষার্থীর নাম মিঠু চন্দ্র শীল। তিনি জগন্নাথ হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক। তবে মিঠুর দাবি, নিয়ম মেনে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেই তিনি ভর্তি হয়েছেন। 

জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ওই বিভাগের প্রফেশনাল মাস্টার্স কোর্সের প্রথম ব্যাচের ভর্তি পরীক্ষা ছিল এটি। ২০২৩ সালের ২২ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়। পরীক্ষায় অংশ নেন ২৬ জন। লিখিত পরীক্ষার ফল ঘোষণার পর মৌখিক পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও পরীক্ষার ঘণ্টাখানেক পরেই মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। পরে চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ২৬ জনসহ অতিরিক্ত একজনের তালিকা প্রকাশ করা হয় এবং ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করতে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। গত ১৪ জানুযারি থেকে এই কোর্সের ক্লাস শুরু হয়েছে।


পরীক্ষার্থীর চেয়ে পাসের সংখ্যা বেশি কেন জানতে জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান এবং ভর্তি কমিটির প্রধান মো. জাহাঙ্গীর আলমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। পরে খুদেবার্তা পাঠালেও সাড়া দেননি।

বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামালকে অবগত করলে উপ-উপাচার্যকে (শিক্ষা) বিষয়টি খোঁজখবর নিতে বলেছেন বলে জানান তিনি।

পরে উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছ থেকে নিয়মতান্ত্রিকভাবে তারা (জাপানিজ স্টাডিজ) কোর্স শুরু করেছে। তবে কীভাবে ২৬ জন পরীক্ষা দিয়ে ২৭ জন পাস করল, সেটি দেখার বিষয়। বিষয়টি নিয়ে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের সঙ্গেও আলাপ হয়েছে। আজ তো বন্ধ, আগামীকাল (রোববার) অফিস টাইমে বিভাগে খোঁজখবর নেওয়া হবে এবং নিয়ম অনুযায়ী তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’