• চাকরির খবর
  • প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা শুক্রবার, সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা শুক্রবার, সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর)। এ পরীক্ষা স্থগিতের দাবিতে ৪১তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার প্রার্থীদের পথ ধরেছেন সহকারী শিক্ষক নিয়োগের প্রার্থীরাও। নির্বাচন কমিশনে (ইসি) লিখিত আবেদন জমা দিয়ে ‘নিরাপত্তা শঙ্কা’ ও ‘যাতায়াত ঝুঁকি’র কথা উল্লেখ করে পরীক্ষা স্থগিতের দাবি জানিয়েছেন কয়েকজন প্রার্থী।

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে ‘প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ-২০২৩ (প্রথম ধাপ) পরীক্ষার্থীদের পক্ষে’ মো. আশরাফুল ইসলাম নামে এক প্রার্থী এ আবেদন করেন। নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা আবেদনটি গ্রহণ করে, তা প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) কাছে উপস্থাপন করবেন বলে প্রার্থীদের জানিয়েছেন।

তবে একই দিন বিকেলে শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা ৮ ডিসেম্বরই অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে ‘সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি’ জারি করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

এতে বলা হয়, ‘সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০২৩-এর প্রথম গ্রুপের (রংপুর, বরিশাল ও সিলেট বিভাগ) আওতাধীন জেলাসমূহের লিখিত পরীক্ষা ৮ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত জেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হবে।’

বিধি অনুসরণ করে সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা ও নিরপেক্ষতার সঙ্গে নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্নের নির্দেশনা দিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘প্রার্থীদের রোল নম্বর, আসনবিন্যাস, প্রশ্নপত্র প্রেরণ ও মুদ্রণ, উত্তরপত্র মূল্যায়ন, ফলাফল প্রস্তুতসহ যাবতীয় কাজ সফটওয়্যারের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে করা হয়। এছাড়া জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় পরীক্ষাকেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। গোয়েন্দা তৎপরতাও জোরদার করা হয়েছে। এক্ষেত্রে কোনো ধরনের অবৈধ হস্তক্ষেপের সুযোগ নেই।’

‘এমতাবস্থায়, দালাল বা প্রতারকচক্রের প্রলোভনে প্রলুব্ধ হয়ে কোনো প্রকার অর্থ লেনদেন না করার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ করা হলো। অর্থ লেনদেন বা অন্য কোনো অনৈতিক উপায়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতেই চাকরি হবে। কেউ অর্থের বিনিময়ে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখালে তাকে নিকটস্থ থানায় সোপর্দ করা অথবা থানা বা গোয়েন্দা সংস্থাকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ করা হলো।’